সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

mymensingh-zakat-tragedy.jpg

পাবলিসিটি যাকাত প্রদানের কারণে আলোচিত দূর্ঘটনা

২০০২ ডিসেম্বরে দেশের সবচেয়ে বড় যাকাত ট্র্যাজেডির ঘটনা ঘটেছিল গাইবান্ধায়। এতে অন্তত ৪২ জন নিহত ও ৭০ জন আহত হয়েছিলেন।

যাকাত ইসলামের অন্যতম  ফরয দায়িত্ব। ইসলাম ধর্মের পঞ্চস্তম্ভের একটি। যার মাধ্যমে আল্লাহর হক এবং বান্দার হক একসাথে আদায় করা হয়। দরিদ্র জনগোষ্ঠির অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য মূলত: মহান আল্লাহ তায়ালা এই বিধানটি ফরজ করে দিয়েছেন।

কিন্তু আমাদের দেশের অবস্থা ভিন্ন। আমাদের দেশে যাকাত আল্লাহকে খুশি করার জন্য দেয়া হয় না লোক দেখানোর জন্য দেয়া হয় তা প্রশ্নবিদ্ধ। কেননা, যাকাত বিতরণ নিয়ে আমাদের দেশে অনেক সময় ঘটছে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, প্রাণ গেছে অনেক গরীব দুঃখির। নিচে যাকাত প্রদাণ নিয়ে আমাদের দেশের কিছু মর্মান্তিক দুর্ঘটনা পাঠকের জ্ঞাতার্থে উল্লেখ করা হলো:

২০১৫, ময়মনসিংহ:
১০ জুলাই শৃক্রবার ভোরে ময়মনসিংহ জেলা শহরের অতুল চক্রবর্তী রোডের নূরানি জর্দা ফ্যাক্টরি থেকে যাকাতের কাপড় সংগ্রহ করতে গিয়ে পদপিষ্ট হয়ে ২৭ জনের মৃত্যু হয়। আহত হয় আরো অন্তত ৪০ জন।

২০১৪,  বরিশাল:
২৫ জুলাই শৃক্রবার বরিশাল নগরীর কাঠপট্টি রোডে খান অ্যান্ড সন্স গ্রুপের মালিকের বাসভবনে যাকাতের কাপড় বিতরণের সময় পদদলিত হয়ে ২০ জন আহত হয়। হাসপাতালে নেয়ার পর দু’জনের মৃত্যু হয়।

২০১৪,  মানিকগঞ্জ:
২৪ জুলাই বৃহস্পতিবার জুলাই মানিকগঞ্জে গার্লস স্কুল রোডে বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা সৈয়দ মাহবুব মোর্শেদ হাসান রুনুর বাসায় যাকাতের কাপড় বিতরণের সময় ভিড়ের কারণে ও প্রচণ্ড গরমে ১৩ নারী অসুস্থ হয়। মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেয়া হলে এর মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়।

২০১২, ঢাকা:
আগস্টে রাজধানীর ফকিরাপুলে ৩ জন নিহত ও ৩৫ জন আহত হয়েছিলেন।

২০১০, চট্টগ্রাম:
সেপ্টেম্বরে চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে নিহত হয়েছিলেন একজন।

২০০৬, পটুয়াখালী:
যাকাত নিতে গিয়ে পটুয়াখালীতে প্রাণ হারান ৩ জন।

২০০২ , গাইবান্ধা:
ডিসেম্বরে দেশের সবচেয়ে বড় যাকাত ট্র্যাজেডির ঘটনা ঘটেছিল গাইবান্ধায়। এতে অন্তত ৪২ জন নিহত ও ৭০ জন আহত হয়েছিলেন।

১৯৯১, ঢাকা:
১৩ই এপ্রিল শনিবার সকাল ১০টায় ঢাকার নওয়াবপুর রোডে যাকাতের কাপড় সংগ্রহ করতে গিয়ে প্রচন্ড ভিড়ের চাপে ঘটনাস্থলেই একজন পুরুষ ও একজন মহিলা নিহত হন এবং আহত হন কম পক্ষে ২৫ জন।

১৯৯০, চট্টগ্রাম:
২৬ এপ্রিল, যাকাত নিতে গিয়ে এ পর্যন্ত দ্বিতীয় বড় দুর্ঘটনাটি ঘটে চট্টগ্রামে। ১৯৯০ সালের ২৬ এপ্রিল পাহাড়তলীর আবুল বিড়ি ফ্যাক্টরিতে যাকাত নিতে গিয়ে পদদলিত হয়ে ৩৫ জন নিহত হয়। নিহতদের মধ্যে ১৮ জন মহিলা, ১৫ জন শিশু ও ২ জন বৃদ্ধ ছিলেন। এসময় আহত হয় দুই শতাধিক মানুষ।

১৯৮৯, চাঁদপুর:
৫ই মে শুক্রবার সকালে চাঁদপুর শহরে যাকাতের কাপড় সংগ্রহ করতে গিয়ে প্রচন্ড ভীড়ের মধ্যে যাকাত সংগ্রহকারীদের পায়ের তলায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই ১৪ জন নিহত হয় এবং আহত হয় ৫০ জন।

১৯৮৭, ঢাকা:
২৩ মে শনিবার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট হোসেইন মুহম্মদ এরশাদ ঢাকার ক্যান্টনমেন্টে যাকাত দেয়ার সময় ব্যাপক লোক সমাগম হয়। একপর্যায়ে লোকজন উচ্ছৃঙ্খল হয়ে পড়লে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় মধ্যে পড়ে ৪ জন মারা যায়। এ ঘটনায় আহত হয় বহু লোক।

১৯৮৩, ঢাকা:
৯ জুলাই, শনিবার সকাল ১১টার দিকে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে যাকাতের টাকা নিতে গিয়ে ভিড়ের চাপে পড়ে ৩ শিশু মারা যায়। আহত হয় আরো অনেকে।

১৯৮০,  ঢাকা:
রমজান মাসে যাকাতের কাপড় সংগ্রহ করতে গিয়ে ঢাকার জুরাইনে শিশুসহ ১৩ জন পদদলিত ও ভিড়ের চাপে নিহত হয়।

এ তো গেলো উল্লেখযোগ্য ঘটনা, এর বাইরেও যাকাতের কাপড় আনতে গিয়ে অনেক ছোটখাট  দুর্ঘটনা ঘটেছে।  আমাদের মনে রাখতে হবে যাকাত ধনী কর্তৃক দরিদ্রদের প্রতি অনুগ্রহ বা দান নয়। বরং সম্পদের উপর দরিদ্রদের অধিকার। তাই ইসলাম নির্দেশিত পথে সঠিক পন্থায় যাকাত প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। তাহলেই যাকাতের সূফল মানবজাতী ভোগ করতে পারবে।

সূত্র : সমকাল, ইত্তেফাক, বাংলামেইল২৪ডটকম,  চ্যানেল আই অনলাইন ডটকম।

-
লেখক: কবি, সাংবাদিক ও কলামিস্ট।

kbasher74@gmail.com


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

zakat, rich, poor, mymensingh, crowd, collapse, death, accident, incidents