সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

Kurigram Picture-05-07-2015.jpg

ঈদ প্রসঙ্গ কুড়িগ্রাম সীমান্তে ভারতীয় 'কিরণমালা'

ভিতরবন্দের কৃষক মসিউর রহমান জানান, তার দুই মেয়ে কলেজে পড়ে। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে তারা কিরণমালা জামার দাবী করেছে। দুই মেয়ের দু‘টি জামা নিতে ৬ হাজার টাকা দরকার।

ঈদকে সামনে রেখে কুড়িগ্রাম সীমান্ত দিয়ে ভারতীয় ‘কিরণমালা' নামের লংকামিজ (থ্রি-পিছ) জামা অবাধে ঢুকছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। ভারতীয় ষ্টার জলসা‘র জনপ্রিয় মেঘা টিভি সিরিয়্যাল কিরণমালা’র নামানুসারে ‘কিরনমালা’ জামা তরুনীদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে।

এই সুযোগে জেলা ও উপজেলার এক শ্রেনীর অসাধু কাপড় ব্যবসায়ী সীমান্তে চোরাকারবারীদের আগাম টাকা দিয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ম্যানেজ করে চটকদার কিরণমালা জামাসহ বিভিন্ন ধরনের জামাকাপড় নির্বিঘ্নে নিয়ে আসছে। এসব চোরাচালানের নিরাপদ রুট হিসাবে নাগেশ্বরী উপজেলার রামখানা, দিঘিরপাড়, ভুরুঙ্গামারী উপজেলার শিংঝাড়, বাঁশঝানি, দিয়াডাঙ্গা ও ফুলবাড়ী উপজেলার বালারহাট, গংগারহাট অনন্তপুর, খলিশাকোটাল ও কাশীপুর সীমান্ত ব্যবহার করা হচ্ছে।

জেলার বিভিন্ন হাট বাজার থেকে খবরে জানা যায়, স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া মেয়েরা ঈদের উপহার হিসাবে কিরনমালা জামাকেই পছন্দের শীর্ষে রেখেছে।

ভিতরবন্দের কৃষক মসিউর রহমান জানান, তার দুই মেয়ে কলেজে পড়ে। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে তারা কিরণমালা জামার দাবী করেছে। দুই মেয়ের দু‘টি জামা নিতে ৬ হাজার টাকা দরকার।

নাগেশ্বরীর রিক্সা চালক জমরুদ্দিন বলেন, ‘মোর বেটি আকলিমা খাতুন কাস নাইনে পড়ে। তার দাবী কিরণমালা জামা দিতে হবে। নচেৎ সে আর পড়বে না। কি করি ভাই দেড়-দুই হাজার টাকা মুই কোটাই পানং’।

কুড়িগ্রামে সেজুতি বস্ত্রালয়ের বিক্রেতা শাহিন ও নুর আলম জানান, গতবার ঈদে ‘পাখি’ জামা নিয়ে মেয়েরা ব্যাকুল ছিল, এবার ‘কিরণমালা’ নিয়ে কাড়াকাড়ি চলছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছক নাগেশ্বরীর এক কাপড় ব্যবসায়ী জানান, তিনি ভারত থেকে ছোটবড় সাইজের ৫শ পিচ কিরণমালা জামার ১ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা দরে এনেছেন। এখন প্রতিটি ১৫শ থেকে ৬ হাজার টাকা দরে বিক্রী করছেন। রামখানা, অনন্তপুর, বালারহাট ও গংগারহাট বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডাররা জানান, তারা সীমান্তে কড়া পাহারার ব্যবস্থা করেছেন। চোরাই পথে আসা মাদকসহ কোন কিছুতেই ছাড় দেয়া হবে না।

ফুলবাড়ী থানার ওসি বজলুর রশীদ জানান, ফুলবাড়ী সীমান্তে ৬টি বিজিবি ক্যাম্প আছে তারাই জানেন সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে কি আসে। নাগেশ্বরী থানার ওসি বলেন, আমার কাছে কোন খবর নাই। উল্লেখ্য, গত বছরে ঈদের সময় পাখি জামার জন্য দেশের বিভিন্ন স্থানে তরুনীদের আত্মহত্যার খবর ছড়িয়ে পড়ায় অভিভাবকরা আতংকিত হয়ে পড়েন।

এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

kironmala, Eid, dress, fashion, culture, local, kurigram, Boarder, life, poverty