সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

bangladesh-football.jpg

ফুটবল আফগানিস্তান ও সিঙ্গাপুর সঙ্গে খেলবে বাংলাদেশ

র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে থাকার কারণে বাংলাদেশ সরাসরি খেলবে রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে। ৪০টি দল আটটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে এই বাছাই পর্ব।

প্রথমে শোনা গিয়েছিল উত্তর কোরিয়ার নাম। পরে সময় স্বল্পতার অজুহাতে দেশটি না করে দিয়েছে। বিকল্পের সন্ধানে বাফুফের দৃষ্টি ছিল ভারত ও সিঙ্গাপুরের দিকে। শেষ পর্যন্ত সফলই বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের আগে বাংলাদেশের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ খেলতে রাজি হয়েছে সিঙ্গাপুর। আগামী ৩০ মে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

অন্যদিকে ৪ জুন আফগানিস্তানের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ হওয়ার কথা থাকলেও দুইদিন এগিয়ে আনা হয়েছে। সেই হিসাবে আগামী ২ জুন হবে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান আন্তর্জাতিক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ। দুটি ম্যাচই শুরু হবে বিকেল চারটায় ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। সোমবার এমনটিই নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন।

আগামী মাসে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাই পর্বে দুটি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ১১ ও ১৬ জুন যথাক্রমে কিরঘিজস্তান ও তাজিকিস্তানের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে মামুনুল শিবির। তার আগে সিঙ্গাপুর ও আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে প্রীতি ম্যাচ দিয়ে নিজেদের ঝালিয়ে নেবে ক্রুইফ শিবির।

র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে থাকার কারণে বাংলাদেশ সরাসরি খেলবে রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে। ৪০টি দল আটটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে এই বাছাই পর্ব। আট গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ও সেরা চার রানার্স আপ; মোট ১২টি দল খেলবে রাশিয়া বিশ্বকাপের মূল বাছাই পর্বে। এই ১২টি দল আবার সরাসরি সুযোগ পাবে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠেয় এশিয়ান কাপ ফুটবলেও।

বাংলাদেশ পড়েছে বি গ্রুপে। যেখানে মামুনুলদের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়া, জর্ডান, তাজিকিস্তান, ও কিরঘিজস্তান। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে বাংলাদেশ প্রত্যেক দলের সঙ্গে খেলবে দুটি করে ম্যাচ। এখানে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন কিংবা রানার্স আপ হওয়ার সম্ভাবনা বাংলাদেশের খুবই কম।

তাই বলে বাংলাদেশের এশিয়ান কাপে খেলার সুযোগ থাকছে না, তা নয়। বাকি চারটি রানার্স আপ, তৃতীয় হওয়া আট দল ও সেরা চতুর্থ হওয়া চারটি দল; মোট ১২ দল এশিয়া কাপের দ্বিতীয় বাছাই পর্বে খেলবে। এখানেও বাংলাদেশ সুযোগ না পেলে ক্ষেত্র আরও রয়েছে। চতুর্থ স্থানে থাকা বাকি চারটি দল ও পঞ্চম স্থানে থাকা আটটি দল প্লে অফ খেলবে, এখান থেকে আটটি দল ঐ ১২টি দলের সঙ্গে যোগ হবে।

মোট ২৪ দল নিয়ে ছয়টি গ্রুপে খেলা হবে। প্রতি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ, অর্থাৎ এখান থেকে মোট ১২ দল অংশ নেবে এশিয়া কাপের মূল পর্বে। সব মিলিয়ে এশিয়া কাপ হবে মোট ২৪ দলের।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

Fifa, match, Friendly, Afganistan, Singapore, football, Bangladesh