সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

plastic-on-left.jpg

ঢাকায় থাকি ওস্তাদ বাঁয়ে প্লাস্টিক

যাঁরা গুলিস্তান থেকে ফার্মগেট যান ৩ নম্বর বাসে চড়ে অথবা ৭ নম্বর বাসে করে সদরঘাট থেকে গাবতলী যান, তাঁরা অবশ্যই কথাটি শুনে থাকবেন। হেসেও থাকবেন বোধ করি। অনেকের মনে হয়তো প্রশ্ন জেগেছে, কী এই প্লাস্টিক? কোথা থেকে এলো? বাসের হেলপারের মুখে বাক্যটি খুব শোভা পায়। বিশেষ করে যখন বাস ও প্রাইভেট কার পাশাপাশি থাকে। হেলপার ড্রাইভারকে সাবধান করতেই কথাটি বলে থাকে।

ড্রাইভার কালাম ১৫ বছর ধরে বাসের জগতে বিচরণ করছেন। বললেন, 'আমি প্রায় ১৫ বছর ধইরা গাড়িতে কাম করি, এই কামে আওয়ার পর হইতেই প্লাস্টিক কতাডা হুনি, প্রাইবেট দেখলে আমরা হেইডারে প্লাস্টিক কই।' প্রাইভেট কারগুলোকে প্লাস্টিক বলার পেছনে যুক্তিও দেখালেন তিনি - 'প্রাইবেট গাড়িগুলার বডি খুব পাতলা, প্লাস্টিক চাপ দেলেই যামনে চ্যাপডা অইয়া যায়, প্রাইবেট কারে চাপ লাগলেও হেই রহম চ্যাপডা অইয়া যায়। তাই প্রাইভেটগুলারে প্লাস্টিক নামে ডাকি আর আমাগো হেলপাররা বাঁয়ে প্লাস্টিক কইলে আমরাও গাড়ি ডাইনে লইয়া চালাই।'

তবে প্রাইভেট কারগুলোকে প্লাস্টিক বলার পেছনে ভিন্ন যুক্তি তুলে ধরলেন ২৫ বছর ধরে এই পেশায় থাকা ড্রাইভার খলিল। বললেন, 'প্রাইভেট কার রাস্তায় চলার সময় বাসের পাশ কাডাইয়া যহন-তহন ওভারটেক করে, সাইড দেতে কইলে পাত্তা দেয় না। ওরা রিকশারে ভয় পায়; কিন্তু বাসগুলারে ভয় পায় না; কারণ রিকশায় খোঁচা লাগলে জরিমানা নেতে পারে না, বাসে খোঁচা লাগলে আমাগো কাছ দিয়া ক্ষতিপূরণ লইয়া ছাড়ে আর প্রাইভেট কারের মালিকরা বেশির ভাগ ক্ষমতাবান হওয়ায় আমরাও জরিমানা দেতে বাধ্য হই, হেই কারণেই প্রাইভেটগুলারে তামাশা কইরা প্লাস্টিক কইয়া ডাকি।'

কিন্তু কখন থেকে শুরু হলো প্লাস্টিক নামে ডাকা? এর কোনো সঠিক ব্যাখ্যা তাঁদের কাছে না থাকলেও ড্রাইভার খলিল বিষয়টি একটু খোলসা করার চেষ্টা করলেন। বললেন, 'প্রায় ১৮-২০ বছর আগে পরথম এই কতাডা হেলপারগো মুহে মুহে ছড়াইতে শুরু করে, আমিও হেই সময় হেলপারের কাম করতাম, পরথম পরথম সবাই এইডা লইয়া হাসাহাসি করত, পরে সবাইর মুহের বুলি অইয়া গেছে, অনেক সময় এইডা লইয়া অনেক হাউকাউ বাধত। একবার এক প্রাইভেট কাররে প্লাস্টিক কওয়ায় গাড়ির মালিক গাড়ি দিয়া নাইম্যা হেলপাররে থাপ্পড় মারছে, কইল আমার এত দামি গাড়িরে প্লাস্টিক কওয়ার সাহস তোরে ক্যাডা দিসে? এই রহম ক্যাঁচাল প্রায়ই অইত, অহন মানুষেও হুনতে হুনতে অব্যাস অইয়া গেছে, এহন আর কেউ কিছু কয় না।'

তবে বাসের হেলপারদের মুখে যে কেবল একটা বাক্যই শোনা যায়, তা নয়। এ ধরনের আরো কিছু বাক্য তারা ব্যবহার করে। যেমন, ওস্তাদ বাঁয়ে ডিব্বা, চাপ দিয়া আগে লন, লেডিস নামবে ইত্যাদি।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

Dhaka, life, fun, story, plastic, car, bus, Gulistan, Sadarghat, daily